কুণালের অডিয়ো ক্লিপের পাল্টা কল্যাণের হোয়াটসঅ্যাপ স্ক্রিনশট, তুঙ্গে মানিকতলা উপনির্বাচন

মানিকতলা উপনির্বাচনের আগে বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা কুণাল ঘোষ। তাঁকে নির্বাচনে অন্তর্ঘাত করার প্রস্তাব দিয়েছে বিজেপির কল্যাণ চৌবে বলে অভিযোগ। পাল্টা তখন এসব মিথ্যে কথা বলে দাবি করেছিলেন বিজেপি প্রার্থী। এবার উপনির্বাচন চলাকালীনও তৃণমূল কংগ্রেস নেতা কুণাল ঘোষ ও বিজেপি প্রার্থীর মধ্যে দ্বৈরথ অব্যাহত রইল। উপনির্বাচনের দিনই সাংবাদিক বৈঠক করে আবার একের পর এক তথ্য ‘ফাঁস’ করলেন কল্যাণ চৌবে। সরাসরি আক্রমণ শানালেন কুণাল ঘোষের বিরুদ্ধে। আর তাতেই জমে উঠল রাজ্য–রাজনীতি।

কুণাল ঘোষকে বিজেপি প্রার্থী কল্যাণ চৌবে ফোন করেন বলে দাবি। একটি অডিয়ো ক্লিপ তা নিয়ে সামনে আনেন কুণাল। যা টেলিফোনে কল্যাণ–কুণালের কথোপকথন বলে দাবি করা হচ্ছে। সেখানে কুণালকে অন্তর্ঘাত করার প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে বলে তাঁর অভিযোগ। বিনিময়ে ক্রীড়াজগতে রাজ্য বা জাতীয় স্তরে বড় পদ পাইয়ে দেওয়ার প্রস্তাব দিচ্ছেন কল্যাণ বলে দাবি কুণালের। আজ বুধবার পরিষ্কার এই বিষয়ে কল্যাণ চৌবে বলেন, ‘‌এই মানুষটা কদিন আগে তাপস রায়কে জেতানোর জন্য নিজের দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন। আমার কাছে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের স্ক্রিনশট আছে।’‌ এই কথা বলে হাওয়া গরম করে দেন কল্যাণ।

আরও পড়ুন:‌ ‘‌আমাকে ভোটে অন্তর্ঘাতের প্রস্তাব দেয়’‌, কল্যাণ চৌবের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ কুণালের

মঙ্গলবার যখন কুণাল অভিযোগ তোলেন তখন কল্যাণ চৌবে পাল্টা বলেছিলেন, কুণাল ঘোষ নাকি বিজেপিতে যোগ দিতে চেয়েছিলেন। তার জন্য একাধিকবার তাঁর বাড়িতেও গিয়েছেন কুণাল। বিজেপি প্রার্থীর বক্তব্য, ‘‌উনি আমার বাড়িতে একটা মেরুন স্যান্ট্রো করে একাধিকবার এসেছেন। আমায় বলেছিলেন বিজেপিতে যোগ দেবেন।’‌ জবাবে কুণালের খোঁচা, ‘‌বিজেপিতে যাওয়ার ইচ্ছা হলে পচা কল্যাণকে আমার লাগবে না।’‌ এই কথা প্রেক্ষিতে মানিকতলার বিজেপি প্রার্থীর মন্তব্য, ‘‌এই শব্দটাকে আমি নিন্দা করছি। উনি নিম্নরুচির পরিচয় দিয়েছেন।’‌

আরও পড়ুন:‌ মুখ্যমন্ত্রীর কথা মেনে নিল রেল, একাধিক সমস্যায় বাড়িয়ে দেবে সাহায্যের হাত, কাটল জট

নিজের দাবির সপক্ষে একটি অডিয়ো ক্লিপ সংবাদমাধ্যমের সামনে আনেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা। যদিও ওই অডিয়ো’‌র সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা ডিজিটাল। কুণালের কথায়, ‘‌রবিবার রাত সাড়ে ১১ নাগাদ ফোন করেন কল্যাণ। আমাকে ভোটে অন্তর্ঘাতের প্রস্তাব দেয়। বিনিময়ে খেলার জগতে রাজ্য বা জাতীয় স্তরে বড় পদের প্রস্তাবও দেয়।’‌ পাল্টা কল্যাণ চৌবের বক্তব্য, ‘‌আমি সকলের কাছে ভোট প্রার্থনা করছি। সেই হিসাবে তাঁর সঙ্গেও কথা বলেছি। কিন্তু আমি কোনও প্রতিশ্রুতি দিয়েছি এটা সম্পূর্ণ মিথ্যে কথা। পুরো অডিয়ো ক্লিপিং শোনালে সেটা বোঝা যাবে।’‌ আর আজ কল্যাণ চৌবে বলেছেন, ‘‌ওঁর পাঠানো ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপি জিতবে তার স্ক্রিনশট রয়েছে আমার কাছে। তবে আমি ব্যক্তিগত কথোপকথন বাইরে আনব না।’‌