Uttar Pradesh bus accident: UP-তে ভয়াবহ দুর্ঘটনা! দুধের গাড়িতে ধাক্কা মেরে উলটে গেল বাস, মৃত ১৮ শ্রমিক

কাকভোরে ঘটে গেল ভয়ংকর দুর্ঘটনা! বিহার থেকে দিল্লি যাওয়ার পথে বাস দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল ১৮ জন পরিযায়ী শ্রমিকের। এছাড়াও, আহত হয়েছেন আরও ১৭ জন। আজ বুধবার ভোরে ভয়ঙ্কর এই বাস দুর্ঘটনা ঘটে উত্তরপ্রদেশের উন্নাওয়ে আগ্রা-লখনউ এক্সপ্রেসওয়েতে। পরিযায়ী শ্রমিক বোঝাই ডবল ডেকার বাসটি একটি ট্যাঙ্কারকে ওভারটেক করতে গিয়ে উলটে যায়। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা শুরু করা হয়েছে। যার মধ্যে তিনজনের অবস্থা গুরুতর। এই ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। আহতদের সব রকমের চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: জাতীয় সড়কে উলটে গেল কলকাতাগামী বাস! কাটা পড়ল পা, আহত অনেকে, ঘুমোচ্ছিলেন চালক?

জানা যাচ্ছে, ডবল ডেকার বাসটি পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে বিহারের সীতামাঢ়ি থেকে দিল্লি রওনা দিয়েছিল। ভোর সাড়ে চারটে নাগাদ বাসটি উন্নাওয়ের বাঙ্গারমাউয়ের কাছে গাধা গ্রামে পৌঁছালে একটি দুধ ভর্তি ট্যাঙ্কারকে ওভারটেক করার চেষ্টা করেন চালক। তখনই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি ট্যাঙ্কারে ধাক্কা মারে। তার ফলে বাসটি উলটে যায়। বাসের গতি স্বাভাবিকের থেকে অনেক বেশি থাকায় ধাক্কা মারার পর বেশ কয়েকবার পালটি খায় বাসটি। দুর্ঘটনাস্থল থেকে বাসটি ছিটকে অনেকটা দূরে গিয়ে পড়ে। দুর্ঘটনা এতটাই মারাত্মক ছিল যে ডবল ডেকার বাসটি একেবারে দুমড়ে মুচড়ে গিয়েছে। ভোরের এই দুর্ঘটনায় এলাকায় তুমুল চাঞ্চল্য ছড়ায়। প্রথমে স্থানীয়রা সেখানে ছুটে গিয়ে উদ্ধার কাজ শুরু করেন। পরে পুলিশ গিয়ে হতাহতদের একে-একে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। 

তাদের উদ্ধার করে বাঙ্গরমাউ কমিউনিটি হেলথ সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক ১৮ জনকে মৃত ঘোষণা করেন। জানা গিয়েছে, এদিনের বাস দুর্ঘটনা নিহতদের মধ্যে ১৪ জন পুরুষ, ৩ জন মহিলা ও একজন শিশু রয়েছে। চিকিৎসকরা গুরুতর আহত যাত্রীদের লখনউয়ের ট্রমা সেন্টারে রেফার করেছেন। নিহতদের পরিচয় এখনও জানা সম্ভব হয়নি। তা চেষ্টা করছে পুলিশ।

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এই দুর্ঘটনায় শোকপ্রকাশ করে আধিকারিকদের দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর এবং উদ্ধার কাজ দ্রুত করার নির্দেশ দিয়েছেন। একইসঙ্গে হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। এছাড়াও শোকপ্রকাশ করেছেন উত্তরপ্রদেশের পরিবহণ মন্ত্রী দয়াশংকর সিং।