সহকারী অধ্যাপক পদে ৪৪ জনকে পদোন্নতি দিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

দেশের বিভিন্ন এলাকায় জাতীয়করণ করা কলেজের ৪৪ জন প্রভাষককে ষষ্ঠ গ্রেডে সহকারী অধ্যাপক পদে পদোন্নতি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। রায়ের কপি পাওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে আদালতের আদেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে জারি করা রুল নিষ্পত্তি করে বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি কাজী জিনাত হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাশগুপ্ত।

পরে অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ মিয়া বলেন, ‘সারা দেশে ২০১৮ সালের পর বিভিন্ন কলেজকে সরকারিকরণ করা হয়। একইভাবে ওইসব কলেজের ওই সময়ে কর্মরত প্রভাষকদের আত্তীকরণ করা হয় আত্তীকরণ বিধিমালার আলোকে। কিন্তু এরপর দেখা যায়, যেসব প্রভাষক জাতীয়করণের আগে সপ্তম গ্রেডে বেতন ভাতা পেতেন তাদের নবম গ্রেড দেওয়া হয়েছে। এমনকি ২০১৮ সালের পর থেকে গ্রহণ করা বাড়তি বেতন তাদের কাছে ফেরত চাওয়া হয়। এই আদেশটি বৈষম্যমূলক ছিল। তাই তারা হাইকোর্টে রিট পিটিশন দায়ের করেন। পরে সাপ্লিমেন্টারি রুল নেওয়া হয়। সেখানে প্রভাষকরা আত্মীকরণ বিধিমালার আলোকে পূর্ববতী ৫০ শতাংশ চাকরি গণনা করে পরবর্তী পদ সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতিসহ ষষ্ঠ গ্রেড দেওয়ার আবেদন করেন।’